ভারতে মুসলিম শাসনের ইতিহাস pdf বই

রচনায়ঃ ড. মুহাম্মদ ইনামুল হক

1532

ভারতে মুসলিম শাসনের ইতিহাস

ভারতে মুসলিম শাসনের ইতিহাস pdf বই

মুসলিম বিজয়ের প্রাক্কালে ভারতের রাজনৈতিক অবস্থা

মুসলিম বিজয়ের প্রাক্কালে ভারতীয় উপমহাদেশের অবস্থা খুবেই শোচনীয় ছিল বলিয়া ধারণা করা হয়। তখনকার দিনে রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে কোন প্রকার উন্নতি পরিলক্ষিত হয় না। প্রাক-মুসলিম-ভারতের ইতিহাসে কোন প্রকার জাতিগত একাত্মতাবোধ বা ভৌগলিক অখন্ডতার ভাবধারণা পরিলক্ষিত হয় না। মুসলিম বিজয়ের প্রাক্কালে ভারতের বিরাজমান রাজনৈতিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবস্থার রুপরেখা ছিল নিম্নরুপঃ

  • রাজনৈতিক অবস্থা – রাজা হর্ষবর্ধন (মৃত ৬৪৫ খ্রিৎ) এক সুবিশাল সাম্রাজ্য গঠন করেন এবং তাঁহার সময়েই ভারতের কিছুটা রাজনৈতিক সাম্রাজ্য বা রাজ্যবোধের উদয় হয়। কিন্তু ৬৪৫ সালে তাঁহার মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে সমগ্র দেশ বিশৃঙ্খলতায় পতিত হয় এবং তৎকালীন দুর্বিক্ষ এই বিশৃঙ্খলাকে আরও গুরুতর করিয়া তোলে। হর্ষবর্ধনের মৃত্যুর পর এই বিশৃঙ্খলা বেশ কিছু বৎসর স্থায়ী হয়। এই সময়ের গোলযোগকে হিন্দু হইতে মুসলিম ভারতের পরিবর্তন যুগ বলা যায়। হর্ষবর্ধনের সময় ভারতের আংশিক ভৌগলিক ঐক্যও দূরীভূত হয় এবং দ্বাদশ শতকের শেষের দিকে মুহাম্মদ ঘোরি ভারতীয় বিশাল ভূখন্ডের গুরুত্বপূর্ণ প্রদেশগুলিকে দিল্লী সালতানাতের অধীনস্থ করিয়া ইসলামের ছত্রছায়ায় ভারতীয় ঐক্যের নূতন চত্বর রচনা করেন। তাঁহার পূর্বে ভারতীয় ঐক্যের পুনর্গঠন আর সম্ভব হয় নাই।

আরও বই পড়ুন – ইমান ও মুসলিম জাতির হেফাজত (১ম খন্ড)
  • রাজপুত – ভারতে মুসলিম শাসনের ইতিহাসঃ- এই পরিবর্তন যুগের উল্লেখযোগ্য বিষয় রাজপুত গোষ্ঠীর উদয়। ইহাদের কথা পূর্বে ইতিহাসে আর কখনই শোনা যায় না। অষ্টম শতক হইতে তাহারা উত্তর  পশ্চিম ভারতের ইতিহাসে একটি প্রসিদ্ধ ভূমিকা গ্রহণ করিতে আরম্ভ করে। রাজপুতগণ এতই খ্যাতিসম্পন্ন হইয়া উঠে যে, সপ্তম শতকের মাঝামাঝিতে হর্ষবর্ধনের মৃত্যুর পর হইতে মুসলমানদের ভারত বিজয় পর্যন্ত সময়কে রাজপুত যুগও বলা চলে। রাজপুতগণ নির্দিষ্ট কোন একটি বংশোদ্ভূত নহে। এই নাম বলিতে একটি যুদ্ধপ্রিয় স্বভাবের গোত্র বা গোষ্ঠী বুঝায় মাত্র।

আরও বই পড়ুন – আশরাফুল জওয়াব – মাওলানা আশরাফ আলী থানভী রহ.

এই গোত্রের লোকেরা নিজেদের কুলীন সম্প্রদায়ের লোক বলিয়া দাবি করে। মূলত তাহারা হিন্দু ছিল না। কিন্তু পরে তাহাদিগকে হিন্দু সমাজের মধ্যে গণ্য করিয়া লওয়া হয়। এই পরিবর্তন যুগের গোলযোগে কতগুলি নূতন রাষ্ট্রপুঞ্জের সৃষ্টি হয়। এই গুলি (১) হিমালয়ের রাজ্যসমূহ, (২) মূল দাক্ষিণাত্য এবং মহীশূর, (৩) সুদূর দক্ষিণাবর্ত এবং (৪) সমতলভূমির উত্তর ও পশ্চিমা রাজ্যসমূহ।

হিমালয়ের রাজ্যসমূহঃ ভারতের চীন সীমান্তে ৬৬১ হতে ৬৬৫ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত চীনদেশ পৃথিবীর বুকে অতুলনীয় সম্মান উপভোগ করে। সোয়াত উপত্যকা এবং পারস্য হইতে কোরিয়া পর্যন্ত এই সমগ্র ভুভাগ হইতে তাহারা রাজদূত গ্রহণ করে। কিন্তু এই খ্যাতি বেশিদিন স্থায়ী হয় নাই। অষ্টম শতকে মুসলমানদের অগ্রগতি কাশ্মীর পর্বতশ্রেণীর উপর চীনাদের সমস্ত দাবি নস্যাৎ করিয়া দেয়

ভারতে মুসলিম শাসনের ইতিহাস pdf বই

  • তিব্বতঃ সপ্তম এবং অষ্টম শতকে তিব্বত একটি শক্তিশালী রাজ্য ছিল। ৬২৯ হইতে ৬৫০ সালের মধ্যে বিখ্যাত তিব্বতি রাজা স্ট্রঙ্গ স্যান গ্যামপো Strong tsan Gampo একজন জবরদখলকারীকে পরাভূত করেন। এই জবরদখলকারী হর্ষবর্দ্ধন কর্তৃক পরিত্যক্ত সিংহাসন অধিকার করিতে সাহস করে। এই রাজা তাঁহার রাজ্যে বৌদ্ধ ধর্ম প্রচলন করেন। তিনি লাসা শহরও স্থাপন করেন।

  • কাশ্মীরঃ কাশ্মীরের পর্বতরাজি প্রায়ই ইহাকে বিদেশী আক্রমণের হাত হইতে রক্ষা করে এবং এইভাবে ইহা স্বীয় বিচ্ছিন্ন স্বাধীনতা রক্ষা করিয়া আসে। এতদসত্ত্বেও মৌর্য এবং কুশান উভয় বংশই এই উপত্যকার উপর যথার্থ অধিকার চালাইয়া যায়। রাজা হর্ষবর্দ্ধন এই দেশকে তাঁহার সম্রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত করিতে চেষ্টা করেন নাই। কাশ্মীরের হিন্দু শাসকগণ প্রায়ই অত্যাচারী ছিলেন। তাহাদের নীতি ছিল কৃষকদের শেষ রক্তবিন্দু পর্যন্ত শোষণ করা এবং তাহাদের হাতে মাত্র সামান্য জীবিকাটুকু রাখিয়া আসা। চতুর্দশ শতকে অধিকাংশ লোই ইসলাম গ্রহণ করেন।
ভারতে মুসলিম শাসনের ইতিহাস pdf বই
  • আসামঃ কাশ্মীরের ন্যায় আসামও পর্বতশ্রেণী দ্বারা বেষ্টিত। দুর্লঙ্ঘ্য পর্বথরাজির দরুন ইহা স্বীয় স্বাধীনতা রক্ষা করিয়া আসে। এই দেশ মৌর্য অথবা কুশান সাম্রাজ্যের অন্তর্ভূক্ত ছিল না। চতুর্থ শতকে ইহার হিন্দু রাজা সমুদ্রগুপ্তের প্রভুত্ব মানিয়া নেন। আসামের রাজা যদিও রাজা হর্ষবর্দ্ধনের রাজকীয় আদেশসমূহ পালন করিতেন। হর্ষবর্দ্ধনের মৃত্যুর পর এই বশ্যতা ত্যাগ করা হয়।

ভারতে মুসলমানদের আগমন

ভারতে মুসলিম শাসনের ভিত্তি স্থাপিত হয় ক্রমাগত আক্রমণের মাধ্যমে। এইসব আক্রমণকে কতগুলি সুনির্দিষ্ট স্তরে ভাগ করা যায়। যথাঃ

  • আরবগণ কর্তৃক মদিনা ও দামেস্ক হইতে পরিচালিত আক্রমণ,

ভারতে মুসলিম শাসনের ইতিহাস pdf বই

  • আফগানিস্তানের গজনী হইতে পরিচালিত আক্রমণ এবং
  • ঘোর হইতে পরিচালিত আক্রমণ।

মুসলিম আক্রমণের প্রথম স্তর

আরবদের সিন্ধু বিজয়

পশ্চিম ভারতের ঐশ্বর্যশালী বন্দরগুলির প্রতি সর্বদাই মুসলমানদের প্রখর দৃষ্টি ছিল। পারস্য বিজয়ের সঙ্গে সঙ্গে তাহাদের ভারত বিজয়ের আকাঙ্কা আরও তীব্রতর হয়। ৬৩৭ খ্রিষ্টাব্দে হযরত ওমর রা. সময় জলপথে একদল সৈন্য মুম্বাই এর নিকটবর্তী থানা নামক স্থানে প্রেরণ করা হয়। কিন্তু হযরত ওমর রা. এই ধরনের দূরপাল্লার অভিযান সমর্থন করেন নাই, তাই উহা পরিত্যক্ত হয়। অতঃপর হযরত ওমর রা. এর মৃত্যুর পর সিন্ধুর দেবল উপসাগর ও কালাতের আল-কিকানে একটি অভিযান প্রেরণ করা হয। জলপথের এইসব অভিযানগুলি একের পর এক ব্যর্থ হয়। স্থলপথে মুসলমানগণ বেলুচিন্তানের মাকরান জয় করিতে সমর্থন হয়। ইহার পর ভারতের দিকে সমস্ত অভিযান বন্ধ করিয়া দেওয়া হয়।

DOWNLOAD NOW


ভিডিউ টিউটোরিয়াল পেতে আমাদের চ্যনেলটি সাবস্ক্রাইব করুন।

Online Academy BD